শাহিন-হাসানের তোপে শুরুতেই এলোমেলো বাংলাদেশ


লিড নিয়ে খেলতে নেমে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুটা একদম ভালো হলো না। পাকিস্তানের বাঁহাতি পেসার শাহিন শাহ আফ্রিদি জোড়া আঘাত করে বিপাকে ফেললেন স্বাগতিকদের। পঞ্চম ওভারে তিন বলের মধ্যে সাজঘরে ফিরলেন ওপেনার সাদমান ইসলাম ও তিনে নামা নাজমুল হোসেন শান্ত। পরের ওভারে ডানহাতি পেসার হাসান আলির শিকার হয়ে বিদায় নিয়ে দলের বিপদ বাড়ালেন অধিনায়ক মুমিনুল হক।

রবিবার (২৮ নভেম্বর) চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে চলছে বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের প্রথম টেস্টের তৃতীয় দিনের খেলা। এই প্রতিবেদন লেখার সময়, বাংলাদেশের সংগ্রহ ১১ ওভারে ৪ উইকেটে ২৫ রান। ক্রিজে আছেন অভিজ্ঞ মুশফিকুর রহিম ও ইয়াসির হোসেন।

পঞ্চম ওভারের তৃতীয় বলে এলবিডব্লিউ হন সাদমান। শাহিনের ফুল লেংথের ডেলিভারিটি আঘাত করে তার সামনের পায়ে। রিভিউ নিয়েছিলেন সাদমান। কিন্তু সিদ্ধান্তে বদল হয়নি। বল ট্র্যাকিংয়ে দেখা যায়, বল লাগত লেগ স্টাম্পে। আম্পায়ার্স কলে মাঠ ছাড়তে হয় তাকে। ১২ বলে তার রান ১। এক বল বিরতি দিয়ে আউট হন নাজমুল হোসেন শান্ত। অনেক বাইরের ডেলিভারিতে খোঁচা দিয়ে রানের খাতা খুলতে পারেননি তিনি। স্লিপে দারুণ এক নিচু ক্যাচ মুঠোয় জমান আবদুল্লাহ শফিক।

মুমিনুল ফিরতে পারতেন পরের বলেই। বল তার ব্যাট ছুঁয়ে স্লিপে থাকা ফিল্ডারের একটু সামনে থাকায় ক্ষণিকের রক্ষা মেলে। কিন্তু তার ক্রিজে থাকার স্থায়িত্ব দীর্ঘ হয়নি। ফলে ১৪ রানে ২ উইকেট হারানো বাংলাদেশ তৃতীয় উইকেট হারায় দলীয় ১৫ রানে।

হাসানের লেংথ বলটি ছিল মিডল ও লেগ স্টাম্পের দিকে। তাতে ছিল না কোনো বিষ। তবে গড়বড় করে ফেলেন মুমিনুল। স্কয়ারের বদলে বল চলে যায় মিডউইকেটে। ঝাঁপিয়ে ক্যাচ নেন আজহার আলি। শান্তর মতো বাংলাদেশের অধিনায়কও দুই বল খেলে শূন্য রানে মাঠ ছাড়েন।

উল্লেখ্য, এদিন চা বিরতির আগে তাইজুল ইসলামের ঘূর্ণি জাদুতে পাকিস্তানের প্রথম ইনিংস থামে ২৮৬ রানে। তাতে বাংলাদেশ পায় ৪৪ রানের গুরুত্বপূর্ণ লিড। ৩৪ টেস্টের ক্যারিয়ারে নবমবারের মতো ৫ উইকেটের স্বাদ নেন বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল। ৪৪.৪ ওভার হাত ঘুরিয়ে সবমিলিয়ে ৭ উইকেট নিতে তার খরচা ১১৬ রান।

এসএইচ



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *