প্রতিশোধ নিতে পারলো না ব্রাজিল, চিলির হারে বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা – শেয়ার বিজ


ক্রীড়া ডেস্ক: ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ম্যাচ মানেই টান টান উত্তেজনা আর দু’দলের ইমেজ রক্ষার লড়াই। আর সেটি যদি হয় বিশ্বকাপ বাছাই পর্ব, তবে লড়াইয়ের মাত্রাটা অনেকটাই বেড়ে যায়।

মঙ্গলবার দিবাগত রাতে কাতারা বিশ্বকাপের লাতিন অঞ্চলের বাছাই পর্বে মুখোমুখী হয়েছিলো চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী এই দু-দল। বিশ্বকাপের মূল পর্বের টিকেট আগেই নিশ্চিত হওয়ায় ব্রাজিলের কাছে এই ম্যাচ ছিলো পয়েন্ট বৃদ্ধি আর গত জুলাইয়ের কোপা আমেরিকার ফাইনালের পরাজয়ের প্রতিশোধের লড়াই।

অপরদিকে আর্জেন্টিনার কাছে যেন বাঁচা মরার লড়াই হিসেবে গণ্য হয়েছিলো এই ম্যাচ। কারন ব্রাজিলের কাছে হেরে গেলে কঠিন হয়ে যেত তাদের বিশ্বকাপ মিশন। আর ব্রাজিলকে হারালে অতি সহজেই বিশ্বকাপ নিশ্চিত হয়ে যেত আর্জেন্টিনার। কিন্তু ম্যাচটি গোলশূণ্য ড্র হওয়ায় বিশ্বকাপ যাত্রা ঝুলে ছিলো আর্জেন্টিনার।

তবে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর ম্যাচের এক ঘণ্টা পরই শেষ হওয়া ইকুয়েডর-চিলির ম্যাচে ০-২ গোলে চিলি হেরে যাওয়ায় আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ নিশ্চিত হয়ে যায়।

এই ম্যাচে চিলির পরাজয়ে লাতিন অঞ্চলের দ্বিতীয় দল হিসেবে বিশ্বকাপ নিশ্চিত হয়ে গেছে আর্জেন্টিনার। এর আগে প্রথম দল হিসেবে বিশ্বকাপের টিকিট নিশ্চিত করেছিল ব্রাজিল।

লাতিন অঞ্চলের বাছাইয়ে ১৩ ম্যাচ শেষে ৩৫ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলে সবার ওপরে রয়েছে ব্রাজিল। সমান ম্যাচে ২৯ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে আর্জেন্টিনা। দুই দলই অপরাজিত রয়েছে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে।

অন্য দলগুলো খেলেছে একটি করে বেশি ম্যাচ। ইকুয়েডর ১৪ ম্যাচে ২৩ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে। সমান ১৭ পয়েন্ট করে রয়েছে কলম্বিয়া ও পেরুর।

ইকুয়েডরের কাছে হেরে যাওয়া চিলির ঝুলিতে রয়েছে ১৪ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট, অবস্থান ছয় নম্বরে। তাদের সামনেও রয়েছে বিশ্বকাপের টিকিট পাওয়ার সুযোগ।

কাতার বিশ্বকাপের জন্য চলতি বাছাইপর্বে লাতিন অঞ্চল থেকে সরাসরি টিকিট পাবে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ চারটি দল। টেবিলের পাঁচ নম্বরে থাকা দলকে খেলতে হবে আন্তঃমহাদেশীয় প্লে-অফ। সব দলই পাবে সমান ১৮টি করে ম্যাচ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *