ভারতকে হেসেখেলেই হারালো নিউজিল্যান্ড – শেয়ার বিজ


ক্রীড়া ডেস্ক: চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের কাছে হেরে চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অভিযানের শুরুতেই ধাক্কা খেয়েছে ভারত। এবার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াইয়ে নেমে এদিনও টস হেরে বসেন কোহলি। যার ফলে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে ঘুরে দাঁড়ানো তো দূরে থাক পঞ্চাশের আগেই ৪ উইকেট হারানো ভারত শেষ পর্যন্ত তুলতে পারে ১১০ রান।

জবাব দিতে নেমে ৩৩ বল হাতে রেখেই ৮ উইকেটের বড় জয় তুলে নিয়ে সেমির পথে অনেকটাই এগিয়ে যায় নিউজিল্যান্ড। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৯ রান করে আউট হন ওপেনার ড্যারিল মিচেল। এছাড়া গাপ্তিল ২০ রান করে আউট হলেও ৩৩ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে জয় নিশ্চিত করেই মাঠ ছাড়েন কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নামা ভারতীয় দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ২৬ রান আসে সাতে ব্যাট করতে নামা রবিন্দ্র জাদেজার ব্যাট থেকে। তাঁর ১৯ বলের ক্যামিওতেই মূলত একশ পার করা ওই স্কোর পায় ভারত। এছাড়া দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৩ রান আসে মারকুটে হার্দিক পান্ডিয়ার ব্যাট থেকে। অন্যদের মধ্যে ১৬ বলে ১৮ রান করেন ওপেনার লোকেশ রাহুল।

ভারতকে এভাবে বেঁধে রাখার কাজে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন মাত্র ২০ রানে ৩টি উইকেট নেয়া ট্রেন্ট বোল্ট ও ১৭ রানে ২টি উইকেট নেয়া ইশ সোধি। এছাড়া সাউদি-স্যান্টনার-মিলনেরাও রাখেন কার্যকরী অবদান।

অলিখিত কোয়ার্টার ফাইনাল। যে দল জিতবে, তাদের সেমির পথ অনেকটাই মসৃণ হয়ে যাবে। দুবাইয়ে সুপার টুয়েলভের এমন মহাগুরুত্বপূর্ণ লড়াইয়ে টস জিতে ভারতকে ব্যাটিংয়ে নামান নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন।

অধিনায়কের সেই সিদ্ধান্তকে যথার্থই প্রমাণ দেন কিউই বোলাররা। শুরু থেকেই একে একে চারটি উইকেট তুলে নিয়ে ভারতকে চাপে ফেলে দিয়েছেন সোধি-বোল্ট-সাউদিরা। ইনিংসের তৃতীয় ওভারেই দলীয় ১১ রানের মাথায় ইশান কিশান (৮ বলে ৪ রান) সাজঘরে ফিরেছেন ট্রেন্ট বোল্টের শিকার হয়ে।

এরপর ষষ্ঠ ওভারে লোকেশ রাহুলকে হারায় ভারত। টিম সাউদিকে পুল করতে গিয়ে ডিপ স্কয়ার লেগে ক্যাচ হন এই ওপেনার (১৬ বলে ১৮)। সেখান থেকে হাল ধরা দূরের কথা, দলকে বিপদের মধ্যে ফেলেই ফিরে যান অভিজ্ঞ রোহিত শর্মাও। ব্যক্তিগত প্রথম বলেই জীবন পেয়েও সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি হিটম্যান খ্যাত এই ব্যাটার।

অষ্টম ওভারে ইশ সোধিকে তুলে মারতে গিয়ে লংঅনে গাপ্তিলের ক্যাচ হন রোহিত। ১৪ বলে ১৪ রানেই থামে তার ইনিংস। এরপর দলীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলিকেও তুলে নেন ইশ সোধি। সেই লংঅনেই বোল্টের ক্যাচ হয়ে ফেরার আগে ১৭ বলে মাত্র ৯ রান করেন ভারত অধিনায়ক। যাতে ৪৮ রানেই চতুর্থ উইকেট হারিয়ে বসে টিম ইন্ডিয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *