প্রতিমার সামনে ঝরঝরিয়ে কেঁদে ফেললেন কাজল!


দু’বছর পরে বাপের বাড়ির সবাইকে দেখে চোখের জল সামলাতে পারলেন না কাজল! কাকা দেব মুখোপাধ্যায়ের কাঁধে মাথা রেখে ঝরঝরিয়ে কেঁদে ফেললেন তিনি। কাজলকে আবেগতাড়িত হয়ে পড়তে দেখে পরিবারের বাকিরা ব্যস্ত হয়ে ওঠেন। ততক্ষণে নিজেকে সামলে নিয়েছেন মুম্বইয়ের বিখ্যাত শশধর মুখোপাধ্যায়ের পরিবারের এই প্রজন্মের বড় মেয়ে। ফের তিনি আগের মতোই হাসিখুশি। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

অতিমারির কারণে গত বছর পূজোয় অংশ নেননি কাজল। ফলে, কাকা, জেঠা- কারওর সঙ্গেই দেখা হয়নি তার। এ দিকে তার জেঠু কোভিডে ভুগে উঠেছেন। সপ্তমীর সন্ধায় তাকে দেখেই আবেগতাড়িত হয়ে পড়েন ‘সিমরন’। নিজেকে সামলাতে পারেননি। জেঠাও জড়িয়ে ধরেন ভাইঝিকে। পরে কাকার কাঁধে মাথা রেখে কেঁদে ফেলেন অভিনেত্রী। সঙ্গে সঙ্গে কাকা দেব মুখোপাধ্যায় জড়িয়ে ধরেন তাকে। আস্তে আস্তে নিজেকে সামলে নেন কাজল।

বাড়ির পূজোয় নিজেকে রানি রঙা শিফনের শাড়িতে সাজিয়েছিলেন কাজল। গলায় চওড়া, ভারী হার। হাতে মানানসই কাচের চুড়ি। চুল তুলে খোঁপা করে বাঁধা। কোনও দিনই চড়া সাজে দেখা যায় না তাকে। তার সঙ্গে দেখা গিয়েছে বোন সর্বাণী এবং অভিনেত্রী সুমনা চক্রবর্তীকে। চিত্রগ্রাহকদের অনুরোধে ক্যামেরার সামনে বিশেষ ভঙ্গিতে দাঁডাতেও দেখা যায় তাকে।

বলিউডে শশধর মুখোপাধ্যায়ের বাড়ির পূজোর নামডাকই আলাদা। যদিও সেই পূজো এখন রানি-কাজল মুখোপাধ্যায়ের পূজো নামে বেশই পরিচিত। মুখোপাধ্যায় পরিবারের এই প্রজন্মের বড় মেয়ে কাজল প্রতি বছরই বাড়ির পূজোয় থাকেন। অঞ্জলি দেন, নিজের হাতে ভোগ পরিবেশন করেন। তার সঙ্গে দেখা যায় রানি, সর্বাণী মুখোপাধ্যায়কেও। থাকেন রানির ভাই রাজা মুখোপাধ্যায়। আমন্ত্রণ পান বলিউডের তাবড় তারকারা।

ডি-ইভূ



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *