ওসিরিজ বানচালের জন্য ভারতকে দুষছে পাকিস্তান – শেয়ার বিজ


ক্রীড়া ডেস্ক: পাকিস্তানের হোম সিরিজ বানচালের পেছনে দায়ী ভারতীয় নাগরিকরাই। দেশটার তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরির এমন বক্তব্যের পর সেটা নিয়ে ট্রল চলছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে, যার বেশিরভাগই অবশ্য করছে ভারতীয়রাই। মাত্র দুই একজনের পাঠানো ভুয়া হুমকিতে কেউ সিরিজ বাতিল করলে গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর দক্ষতা নিয়েও প্রশ্ন তোলাই যায়, আসছে এমন মন্তব্য।

ভদ্রলোকের নাম ওম প্রকাশ মিশ্র। মুম্বাইয়ের র‍্যাপ সিঙ্গার হিসেবে তার পরিচিতি আছে বেশ। তবে জনপ্রিয়তা সেভাবে অর্জন করতে পারেননি। কিন্তু এবারে একটু সিরিয়াস বিষয়ের সাথে জড়িয়ে পড়েছে নামটা। তার বিরুদ্ধে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডে ভুয়া হুমকি পাঠানোর অভিযোগ তুলেছেন খোদ পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরি।

“তাদের এমন আচরণ কেবল পাকিস্তানের জন্যই নয়, বরং পুরো ক্রিকেটের জন্যই হুমকি। আইসিসির অবশ্যই এই ব্যাপারটা গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করা উচিত”, বলেছেন ফাওয়াদ চৌধুরি।

নিউজিল্যান্ডের কাছে যাওয়া ভুয়া হুমকি বিষয়ে এখন পর্যন্ত বেশ কিছু তথ্য জানতে পেরেছে পাকিস্তান। যে মোবাইল ফোন থেকে হুমকির ইমেইলটি পাঠানো হয়েছে, সেটা রিলিজ করা হয় ভারতে ২০১৯ সালের আগস্টে, সেবছরের সেপ্টেম্বরেই সেলফোনটি প্রথম অ্যাক্টিভ হয়। ওম প্রকাশ মিশ্র সেই ফোন থেকে হামজা আফ্রিদি নামে একটা ভুয়া ইমেইল অ্যাকাউন্ট খোলেন। ওম প্রকাশই কাজগুলো করেছেন মুম্বাইতে বসে, যদিও ভিপিএন দিয়ে নিজের লোকেশন তিনি সিঙ্গাপুর দেখিয়েছেন।

আরও পড়ুন: বিকেএসপি নিয়ে কাজ করতে উদগ্রীব তাতেন্দা তাইবু

ঘটনা এখানেই শেষ নয়, আগামী ডিসেম্বরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের আসার কথা পাকিস্তান সফরে। ক্যারিবিয়ানদের কাছেও গেছে একটা হুমকিপত্র যেটা পাঠিয়েছেন এহসানউল্লাহ এহসান। পাকিস্তানের দাবি, নামের বানান দেখেই বোঝা যায়, এই কাণ্ডটাও ঘটিয়েছেন কোনো এক ভারতীয়। যদিও হুমকি পেয়ে নিউজিল্যান্ডের পথে হাঁটছে না ওয়েস্ট ইন্ডিজ, নিজেদের কমিটমেন্ট রক্ষা করার আশ্বাস মিলেছে ক্যারিবিয়ানদের কাছ থেকে।

পাকিস্তানের এমন বক্তব্য আসার পর টুইটারে ট্রেন্ডে পরিণত হয়েছেন ভারতীয় র‍্যাপার ওম প্রকাশ মিশ্র। ছড়িয়ে পড়া বিভিন্ন ট্রলের বার্তা একটাই, একজন সাধারণ মানুষের ভুয়া ইমেইল কীভাবে একটা দেশের প্রফেশনাল ইন্টেলিজেন্স এজেন্সিকে ঘোল খাওয়াতে পারে, আর সেই হুমকি পেয়ে গোটা সফর বাতিল করে ফিরে যায় নিউজিল্যান্ডের মতো জাতীয় দল!

পাকিস্তানের এমন বক্তব্যের বিপরীতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির অবশ্য এখনো কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *