সিনোফার্মের ৬ কোটি টিকা কেনার অনুমোদন


চীনের রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান সিনোফার্মের টিকা বিবিআইবিপি-করভির আরও ৬ কোটি টিকা কেনার অনুমোদন দিয়েছে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। আগামী নভেম্বরের মধ্যে এসব টিকা দেশে আসবে। দামের বিষয়ে কিছু বলা যাবে না। তবে আগের নির্ধারিত দামের চেয়ে কমে টিকা কেনা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

বুধবার অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে ভার্চুয়ালি ২৭তম সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের এসব কথা জানান।

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল । ফাইল ছবি

অর্থমন্ত্রী বলেন, আমরা সিনোফার্ম থেকে ৬০ মিলিয়ন (৬ কোটি) ডোজ টিকা কেনার প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছি। আমরা হিসাব করে দেখেছি দেশের ১৩ কোটি ৮২ লাখ জনগোষ্ঠীকে ভ্যাকসিনেটেড করতে হবে। তার জন্য ২৭ কোটি ৬৫ লাখ টিকা কেনা প্রয়োজন। এর মধ্যে ২ কোটি ৫৫ লাখ টিকা আমাদের হাতে আছে। বাকিটা সংগ্রহ করতে হবে। আজ আমরা ৬ কোটি ডোজ কেনার জন্য অনুমোদন দিলাম। বাকিটা আমরা পর্যায়ক্রমে আনব।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ২৭ কোটি ডোজ টিকার দামটা আমাদের কাছে নেই। কারণ বাকিগুলো নিয়ে এখনও আলোচনা চলছে। দাম নির্ধারিত হলে আমরা বলতে পারব। দাম চূড়ান্ত হয়নি, সেজন্য আমরা এখন বলতে পারছি না।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব শামসুল আরেফিন বলেন, টিকা ক্রয়ের বিষয়ে চীনের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী মূল্য প্রকাশে বাধা আছে। এটা নন ডিসক্লোজার এগ্রিমেন্ট (তথ্য প্রকাশ না করার শর্তে চুক্তি)। সে জন্য মূল্য প্রকাশের তথ্য দেয়া যাবে না। তবে আমরা আশা করি ৬০ মিলিয়ন সিনোফার্মের টিকা পাব। আশা করা যাচ্ছে, আগামী নভেম্বরের মধ্যে আমরা এ টিকা পাব।

অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের আরও বলেন, ‘আমরা ১৩ কোটি ৮২ লাখ লোককে টিকা দেব। এর জন্য টিকা লাগবে ২৭ কোটি ৬৪ লাখ ডোজ। এ পর্যন্ত টিকা দেয়া হয়েছে ২ কোটি ৫৩ লাখ লোককে। বাকি টিকা চীনসহ বিভিন্ন দেশ থেকে সংগ্রহ করা হবে। পর্যায়ক্রমে এ টিকা দেয়া হবে। ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট থেকে টিকা ক্রয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হওয়ার পর চীন, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশ থেকে করোনা প্রতিরোধী টিকা সংগ্রহের চেষ্টা করছে বাংলাদেশ।

এরই মধ্যে টিকা সংগ্রহের একটি রোডম্যাপ তৈরি করেছে সরকার, যা বিশ্বব্যাংক, এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক, জাপানসহ বিভিন্ন উন্নয়ন সহযোগীদের কাছে উপস্থাপন করা হয়েছে। অর্থায়নের প্রতিশ্রুতিও দিয়েছে উন্নয়ন সহযোগীরা।

জানা গেছে, আজকের ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা বৈঠকে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের অধীন স্বাস্থ্য অধিদফতর কর্তৃক চীনা প্রতিষ্ঠান সিনোফার্ম থেকে ৬০ মিলিয়ন ডোজ টিকা সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে (ডিপিএম) চুক্তিপত্রে উল্লিখিত একক মূল্যে কেনার অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এর আগে সরকার চীনের কাছ থেকে সিনোফার্মের দেড় কোটি ডোজ টিকা কেনে। তার মধ্যে ৭০ লাখ ডোজ টিকা ইতোমধ্যে দেশে এসে পৌঁছেছে।

এর বাইরে কোভ্যাক্সের আওতায় দেশে আরও ১৭ লাখ ডোজ সিনোফার্মের টিকা এসেছে। চীন থেকে উপহার হিসেবে বাংলাদেশ পেয়েছে আরও ১১ লাখ ডোজ টিকা।

ডি-এফবি



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *