সাইফ-কারিনার দ্বিতীয় সন্তানের নাম নিয়ে আলোচনা


আদর করে সাইফ-করিনা তাদের প্রথম সন্তানের নাম রেখেছিলেন তৈমুর। কিন্তু সেই নাম নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কের ঝড় উঠেছিল। তুরস্কের স্বৈরাচারী শাসক তৈমুর লঙের নামের কথা মাথায় রেখে সাইফিনার এই নামটা সন্তানের জন্য বাছা একেবারেই উচিত হয়নি। দ্বিতীয় সন্তানের জন্মের পর তাকে শুধু সোশ্যাল মিডিয়া থেকে আড়ালে রেখেছেন সাইফিনা তা নয়, দীর্ঘ সময় তার নামও সামনে আনেননি। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

ফেব্রুয়ারিতে দ্বিতীয় সন্তানে মা হয়েছেন করিনা কাপুর খান। সাইফিনার দ্বিতীয় সন্তানের আগমনের পর থেকেই তাকে নিয়ে উত্সাহের শেষ নেই নেটানাগরিকদের মধ্যে। আন্তর্জাতিক নারী দিবসের দিন দ্বিতীয় সন্তানের ঝলক প্রকাশ্যে এনেছিলেন করিনা। গত মাসেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ফাঁস হয়ে যায় সাইফ-করিনার ছোট ছেলের নাম জেহ, আসলে দাদু রণধীর কাপুর ভুলবশত এক ইনস্টাগ্রাম পোস্টে এই নাম লিখে ফেলেছিলেন, তড়িঘড়ি ডিলিট করে দিলেও সেই স্ক্রিনশট ভাইরাল হয়ে যায়। পরে মুম্বইয়ের এক সংবাদপত্রকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে দাদু রণধীর বলেছিলেন, করিনা এবং সাইফের ছোট ছেলের নাম জেহ রাখা হয়েছে। প্রায় এক সপ্তাহ আগে এই নামটা ঠিক করা হয়।

কিন্তু সব হিসাব উল্টে গেল সোমবার। এদিন প্রকাশিত হয়েছে করিনা কাপুরের লেখা ‘প্রেগন্যান্সি বাইবেল: দ্য আল্টিমেট ম্যানুয়েল ফর মম টু বি’। আর এই বইয়ের শেষ পাতায় ছোট ছেলের আসল নাম প্রকাশ্যে এনেছেন করিনা।

বলিউড হাঙ্গামায় প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, গোটা বই জুড়েই ছোট ছেলেকে জেহ বলেই সম্বোধন করেছেন করিনা। কিন্তু বইয়ের প্রায় শেষে একটি ছবির ক্যাপশনে ‘জাহাঙ্গীর আলি খান’ নামটি লেখা রয়েছে। এখনও পর্যন্ত এই নামের অর্থ বা কী ভাবনা থেকে এই নাম রাখা হয়েছে সেই নিয়ে কোনও মন্তব্য করেননি সাইফ-কারিনা।

ফারসি ভাষায় তৈমুর শব্দের অর্থ হল ‘লোহা’। অন্যদিকে ‘জাহাঙ্গীর’ নামটির উত্পত্তিও ফারসি ভাষাতেই মেলে। ‘জাহান’ শব্দের অর্থ বিশ্ব আর জাহানঙ্গীর শব্দের মানে হল ‘এই বিশ্বের রাজা’। উল্লেখ্য, মোঘল সম্রাট আকবর পুত্রের নামও জাহাঙ্গীর।

ডি-এফবি



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *