শততম ম্যাচে পাত্তাই পেল না জিম্বাবুয়ে, বিশাল জয়


টাইগাররা যে কত ভয়ংকর এবার হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছে জিম্বাবুয়ে। একমাত্র টেস্টে মুমিনুল বাহিনী ২২০ রানে হারায় স্বাগতিকদের। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে তামিম বাহিনী সিরিজ জিতে ৩-০ ব্যবধানে। আজ বৃহস্পতিবার তিন ম্যাচ সিরিজের টি-টোয়েন্টি ম্যাচে প্রথম ম্যাচে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ বাহিনী জয় পেয়েছে ৮ উইকেটে।

নিজেদের ক্রিকেটের ইতিহাসে শততম টেস্ট এবং শততম ওয়ানডে ম্যাচে জয়ী টাইগাররা এবার টি-টোয়েন্টি শততম ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে ৮ উইকেটে হারিয়ে এক অনন্য নজির গড়েছে। আজ টাইগাররা বোলিং ফিল্ডিং এবং ব্যাটিংয়ে দুর্দান্ত নৈপুণ্যে প্রদর্শন করে ম্যাচ জিতে নেয়। টস জিতে জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক সিকান্দার রাজা ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে ভুল করেননি তা দুই ওপেনিং ব্যাটসম্যান এর প্রমাণ করেন।

ম্যাচের শুরু ১০ ওভারে জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানরা টাইগার বোলারদের ওপর প্রাধান্য বিস্তার করে ১০ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ৯১ রান সংগ্রহ করে। স্বাগতিক ব্যাটসম্যানরা পরবর্তী ১০ ওভারে আরো ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠার আগেই জ্বলে ওঠেন টাইগার বোলাররা। ফলে পুরো ২০ ওভার খেলতে পারেনি জিম্বাবুইয়ান ব্যাটসম্যানরা। ১৯ ওপারে ১৫২ রানে গুটিয়ে যায় তাদের ইনিংস।

৫২ বলে অপরাজিত ৬৬ রানের নান্দনিক ইনিংস খেলার পথে বাউন্ডারি হাঁকান নাঈম শেখ

১৫৩ রানের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে খেলতে নেমে ওপেনার সৌম্য সরকার এবং নাঈম শেখ শুরুটা করেন ধীরে সুস্থে। এই দুই ওপেনার প্রথম ১০ ওভারে তুলেন ৭৬ রান। সৌম্য সরকার ৪৫ বলে ৫০ রান করে আউট হয়ে সাজঘরে ফিরে গেলেন ১০২ রানের মাথায় ওপেনিং জুটির বিচ্ছেদ ঘটে। সৌম্য সরকারের বিদায়ের পর নাঈম শেখের সঙ্গে হাল ধরতে মাঠে নামেন অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। মাঠে নেমেই প্রথম বলে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে রানের খাতা খোলেন তিনি। ওপেনার নাঈম শেখ টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন ৪০ বালে ৫০ রান পূর্ণ করে। অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ১২ বলে ১৫ রান করে রান আউট হয়ে সাজঘরে ফিরে গেলে নাঈম শেখকে সঙ্গ দিতে মাঠে নামেন উইকেট-রক্ষক সোহান।

১৮.৫ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে নোঙ্গর করে টাইগাররা । নাঈম শেখ ৫২ বলে ৬৬ রানছ এবং নুরুল হাসান সোহান ৮ বলে ১৬ রানে অপরাজিত থাকেন। ব্যাটিং, বোলিং ও ফিল্ডিংয়ে অলরাউন্ডার নৈপুণ্যে ম্যান অব দ্যা ম্যাচ হোন সৌম্য সরকার।

আর-এসএস/ডি-এমএইচ



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *