মেসিতে ভর করে সেমিফাইনালে আর্জেন্টিনা – শেয়ার বিজ


ক্রীড়া ডেস্ক: সাম্প্রতিক সময়ের ফর্মের তুঙ্গে রয়েছেন লিওনেল মেসি। সেটাই রোববার বাংলাদেশ সময় সকালে কোপা আমেরিকার চতুর্থ কোয়ার্টার ফাইনালে দেখালে তিনি। ইকুয়েডরের বিপক্ষে এ তারকা সতীর্থের দুটি গোলে রাখলেন অবদান। আবার নিজেও করেন একটি গোল। সব মিলিয়ে তার অসাধারণ নৈপুণ্যে ভর করে এ টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে উঠেছে আর্জেন্টিনা।

আজ রোববার বাংলাদেশ সময় সকালে শুরু হওয়া কোপা আমেরিকার চতুর্থ কোয়ার্টার ফাইনালে ইকুয়েডরকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে আর্জেন্টিনা। দলটির হয়ে একটি করে গোল করেন রদ্রিগো ডি পল, লাওরাতো মার্তিনেজ ও লিওনেল মেসি। এর ফলে টানা চতুর্থবারের মতো শেষ চারে গেল আর্জেন্টিনা।

রোববার আর্জেন্টিনার শুরুটা মোটেও ভাল হয়নি। তবে ধীরে ধীরে স্বরূপে ফেরে দলটি। তাইতো ম্যাচের ৪০তম মিনিটে মেসির সহায়তায় আর্জেন্টিনাকে এগিয়ে নেন ডি পল। ফাঁকা পোষ্টে সহজেই বল জড়ান তিনি।

এরার নির্ধারিত সময় শেষ হওয়ার আগে ব্যবধান দ্বিগুন করেন মার্তিনেজ। এ গোলেও অবদান রাখেন কিং লিও। আর অতিরিক্ত সময়ের শেষদিকে ফ্রি কিক থেকে দলের লিড ৩-০ করে জয় নিশ্চিত করেন সেই মেসিই।

রোববার ম্যাচের প্রথমার্ধে বেশ কয়েকটি সুযোগ নষ্ট করে আর্জেন্টিনা। ষোড়শ মিনিটে এগিয়ে গিয়ে বাধা দিতে গিয়ে বল কিংবা মার্তিনেসের নাগাল পাননি একুয়েডর গোলরক্ষক। আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকারের শট হেড করে বিপদমুক্ত করেন রবের্ত আরবোলেদা। পরের মিনিটে কর্নার থেকে অরক্ষিত হেরমান পেস্সেইয়ার শট একটুর জন্য থাকেনি লক্ষ্যে। দারুণ দুটি সুযোগ হাতছাড়া হয় আর্জেন্টিনার।

প্রথমার্ধে মার্তিনেজ পেয়েছিলেন দুটো সুযোগ। একটায় শট করেছিলেন গোলরক্ষক বরাবর, অন্যটা ঠিকঠাক আয়ত্বেই আনতে পারেননি তিনি। বিরতির আগে আরও একটা সুযোগ পেয়েছিল আর্জেন্টিনা। কিন্তু মেসির করা ফ্রি কিক থেকে প্রথমে দারুণ এক হেড দিয়েছিলেন নিকোলাস গঞ্জালেস, প্রথম দফায় তা রুখে দেন ইকুয়েডর গোলরক্ষক। ফিরতি সুযোগে তার শটও রুখে দেন ইকুয়েডর গোলরক্ষক। ফলে এক গোলের সন্তুষ্টি নিয়ে বিরতিতে যেতে হয় আলবিসেলেস্তেদের।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকে নিজেদের মেলে ধরে আর্জেন্টিনা। গোলের নেশাও পেয়ে বসে দলটির। কিন্তু একুয়েডর গোলরক্ষককে কিছুতেই পরাজিত করতে পারছিলেন না মেসিরা। শেষ ম্যাচের শেষ দিকে মার্তিনেজ ও মেসি দ্রুত সময়ের মধ্যে দুটি গোল করেন। তাতে নিশ্চিত হয় আর্জেন্টিনার জয়। এরআগে ম্যাচের ৮৪ মিনিটের সময় মেসির পাস থেকেই দলের দ্বিতীয় গোলটি করেন মার্তিনেজ। আর শেষ বাঁশি বাজার কয়েক মিনিট আগে দর্শনীয় এক ফ্রি-কিকে ইকুয়েডরের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন আর্জেন্টাইন জাদুকর। তাতে নিশ্চিত হয় আর্জেন্টিনার কোপার সেমিতে ওঠা।

ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে আগামী ৬ জুলাইকলম্বিয়ার বিপক্ষে লড়বে আর্জেন্টিনা।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *