টাইব্রেকার ভাগ্যে কলম্বিয়াকে বিদায় করে ফাইনালে আর্জেন্টিনা – শেয়ার বিজ


ক্রীড়া ডেস্ক: সেমিফাইনালে টাইব্রেকার এড়াতে চেয়েছিলেন আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনি। তবে সেই ভাগ্য পরীক্ষাতেই নামতে হল তার দলকে। সেখানে বুধবার বাংলাদেশ সময় সকালে ব্যবধান গড়ে দিলেন এমিলিয়ানো মার্তিনেস। কলম্বিয়ার তিনটি শট ঠেকিয়ে আর্জেন্টিনাকে কোপা আমেরিকার ফাইনালে তোলার আনন্দে মাতালেন তিনি।

বাংলাদেশ সময় বুধবার সকালে কোপা আমেরিকার দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ১-১ গোলে ড্র হয়। এরপর টাইব্রেকার ভাগ্যে কলম্বিয়াকে ৩-২ গোলে হারিয়ে কোপা আমেরিকার ফাইনালে জায়গা করে নেয় আর্জেন্টিনা। এরফলে ফাইনালে ব্রাজিলের সঙ্গী হয়েছে দলটি।

বুধবার টাইব্রেকারে কলম্বিয়া ১ম শট নেন কুয়াদ্রাদো। গোলও করেন এ তারকা। আর্জেন্টিনার প্রথম শট থেকে আবার গোল করেন মেসি। কলম্বিয়ার দ্বিতীয় শট নেন সানচেজ। তবে তাকে রুখে দেন আর্জেন্টিনা গোলরক্ষক মার্তিনেজ। এদিকে আবার আর্জেন্টিনা দ্বিতীয় শট থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন রদ্রিগো। বারের ওপর দিয়ে বল মারেন তিনি। এরপর কলম্বিয়ার ইয়েরি মিনার তৃতীয় শট ঠেকিয়ে দেন সেই মার্তিনেস। গোল হলো না। আর্জেন্টিনা তৃতীয় শটে পেরেডেস গোল করে ফাইনালের স্বপ্ন আরও উজ্জ্বল করেন। তবে কলম্বিয়ার চর্তুথ শটে গোল করলে কিছুটা অস্বস্তিতে পড়ে আর্জেন্টিনা। শেষ পর্যন্ত সেটা দূর করে লওতারো মার্টিনেজ। চতুর্থ শটে এ তারকা গোল করেন। এরপর কলম্বিয়ার শেষ শটটিও ঠেকিয়ে দেন মার্তিনেস। সঙ্গে সঙ্গে ফাইনালে উঠার আনন্দে মাতে আর্জেন্টিনা।

ব্রাসিলিয়ার মানে গারিঞ্চা স্টেডিয়ামে বুধবার শুরু থেকেই বলের নিয়ন্ত্রণ রাখে আর্জেন্টিনা। এ সুবাদে ৭ম মিনিটেই এগিয়ে যায় দলটি। সে সময় কলম্বিয়ার ডি বক্সে দু’জন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে মেসি কাট ব্যাক পাস দেন লাওতারো মার্টিনেজেকে। বক্সের মাঝামাঝি বল পেয়ে ডান পায়ের দুর্দান্ত এক শটে কলম্বিয়ার জাল কাঁপিয়ে দেন এ ফরোয়ার্ড।

পেছনে পড়ার পর যেন নিজেদের খুঁজে পায় কলম্বিয়া। ওই গোল শোধ দেওয়ার সুযোগ এসেছিল কলম্বিয়ার সামনেও। ৩৬ মিনিটে কর্ণার থেকে পাওয়া বলে প্রায় গোল পেয়েই গিয়েছিল তারা। কিন্তু কুয়ারদোর কর্ণারে পাওয়া বলে মিনার নেওয়া হেড লাগে ক্রসবারে।

বিরতির আগেই এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ এসেছিল আর্জেন্টিনার সামনেও। ম্যাচের ৪৪তম মিনিটে মেসির নেওয়া কর্ণারে গঞ্জালেসের করা হেড ফিরিয়ে দেন কলম্বিয়া গোলরক্ষক ডেভিড অস্পিনা। শেষ পর্যন্ত এক গোলে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় আর্জেন্টিনা।

বিরতির পর আরও এগিয়ে যেয়ে আক্রমণাত্বক খেলে আর্জেন্টিনা। অন্যদিকে ম্যাচ ফিরতে জোর চেষ্টা করে কলম্বিয়া। এ সুবাদে ম্যাচের ৬১তম মিনিটে ফ্রি কিক পেয়ে যায় দলটি। ৬১ মিনিটে নিজেদের অর্ধে পাওয়া ওই ফ্রি কিক দ্রুত শট করেন কারডোনা। বক্সের ভেতরে বল পেয়ে দৌড় শুরু করেন দিয়াজ। দারুণভাবে আর্জেন্টিনা গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্টিনেজকে ফাঁকি দিয়ে গোলও করেন তিনি। যে কারণে ম্যাচ জমে ওঠে।

নির্ধারিত সময়ের আগে এগিয়ে যাওয়ার একাধিক সুযোগ নষ্ট করে আর্জেন্টিনা। যে কারণে ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকার রোমাঞ্চে। শেষ পর্যন্ত সেখানে জিতে উৎসবে মাতে দলটি। আগামী ১১ জুলাই শিরোপা লড়াইয়ে ব্রাজিলের মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা।

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *