করোনায় কাজ নেই, মাছ বিক্রি করছেন প্রসেনজিতের কো-স্টার


লকডাউনে বেশ ক্ষতিগ্রস্থ টলিপাড়া। প্রায় ২ মাস শ্যুটিং বন্ধ থাকার পর কাজ চালু হলেও আপাতত ৫০ শতাংশ লোক নিয়ে কাজ চলছে। যার ফলে বাদ পড়ছেন অনেক জুনিয়ার অর্টিস্টরা। বন্ধ রয়েছে সিনেমার কাজও। সংক্রমণ এড়াতে শ্যুটিং শিডিউল পিছিয়ে দিয়েছেন নির্মাতারা। কাজ না থাকায় তাই অনেকেরই উপার্জন বন্ধ। কিন্তু সংসার তো চালাতে হবে! বাড়ির সদস্যদের মুখে দু’ বেলা খাবার জোটাতে মাছ বিক্রির দিকে হাঁটলেন টলিপাড়ার এই চেনা মুখ।

প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, সব্যসাচী চক্রবর্তী, পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়, আবির চট্টোপাধ্যায়ের মতো তাবড় অভিনেতাদের সঙ্গে কাজ করেছেন। কাজের অভিজ্ঞতা রয়েছে মিঠুন চক্রবর্তীর সঙ্গেও। কিন্তু তাতে কি! অভাব পিছু ছাড়েনি। তাই আজ তিনি অভিনেতা থেকে মাছ ব্যবসায়ী। নাম শ্রীকান্ত মান্না। দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে টলিউডে অভিনয় করছেন। বহু সিনেমা-সিরিয়ালের পার্শ্ব চরিত্রে তার দেখা মিলেছে। সিনেমা-সিরিজের পাশাপাশি দীর্ঘদিন ধরে ‘সংস্তব নাট্য দল’-এর সঙ্গে যুক্ত শ্রীকান্ত মান্না। কিন্তু অভিনয়ের প্রতি ভালোবাসা থাকলেও, পেটের দায়ে বিকল্প পেশাকেই বেছে নিয়েছেন।

লকডাউনে সংসার চালাতে মাছ বিক্রি বিকল্প পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছেন শ্রীকান্ত মান্না।

এই খবরটি শেয়ার করে অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র লেখেন, ‘কোনো কাজই ছোট না… কিন্তু কিছু প্রশ্ন তো থেকেই যায়। আর হ্যাঁ কেউ আহা উহু করবেন না। দানের বা ভাতার টাকায় চলছেন না, পরিশ্রম করে নিজের সংসার চালাচ্ছেন। আপনাকে শ্রদ্ধা জানাই কমরেড।’

এর আগে শঙ্কর ঘোষালও কঠিন পরিস্থিতির সম্মুখীন হন। তাকে ফের কাজের সুযোগ করে দেন অভিনেতা সব্যসাচী চৌধুরী, সুদীপ্তা চট্টোপাধ্যায়রা। ‘বামাখ্যাপা’সব্যসাচী ও তার প্রেমিকা অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মার উদ্যোগেই মূলত ফের তার অভিনয় জগতে ফিরে আসে। যে উদ্যোগকে কুর্নিশ জানিয়েছিলেন সাধারণ মানুষ।

এমএইচ



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *