কার্ড ছাপার পরও ৫ দিন আগে বিয়ে বাতিল করে দেন সালমান!


তিনি সালমান খান, তার প্রেমে পাগল, এমন মহিলার সংখ্যা এদেশে কম নেই। এমনকি তার জীবনে প্রেমিকার তালিকাটাও নেহাত কম লম্বা নয়। তবুও ৫৫ পার করেও তিনি ‘সিঙ্গেল’। বলিউডের ‘মোস্ট এলিজেবল ব্যাচেলর’ তিনি। যদিও এই সালমান ও একদিন বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েই ফেলেছিলেন, এমনকি সল্লুর বিয়ের কার্ডও নাকি ছাপা হয়ে গিয়েছিল! হ্যাঁ, ঠিকই শুনছেন। আর একথা খোলসা করেছিলেন সলমনের ঘনিষ্ঠ বন্ধু, প্রযোজক সাজিদ নাদিয়াদয়ালা।

দুবছর আগে কপিল শর্মার শো-তে এসে সালমানের বিয়ের পরিকল্পনার কথা ফাঁস করেছিলেন সাজিদ নাদিয়াদয়ালা। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় নতুন করে উঠে এসেছে সেই ভিডিও।

শোতে সাজিদ বলেন, ”সালটা ১৯৯৯, একবার সালমান আমাকে বলল, চলো একসঙ্গে বিয়ে করে নেওয়া যাক। সে সময় সালমানের একজন বান্ধবী ছিল, আমাকে মেয়ে খুঁজতে হয়েছিল। আমি মা-বাবাকে পাত্রী খুঁজতে বলি। ঠিক হয়, ১৮ নভেম্বর সালমানের বাবার জন্মদিনে দুজনে একসঙ্গে বিয়ে করব। সবকিছু ঠিক হয়ে গিয়েছিল। এমনকি কার্ড ছাপা ও বিলি করাও হয়ে গিয়েছিল। হঠাৎই ৫-৬দিন আগে ও (সালমান) বলে আমি বিয়ে করব না। আমার ইচ্ছা করছে না। সালমান অবশ্য আমার বিয়েতে হাজির হয়েছিল। এসে আমার কানে ফিস ফিস করে বলল, বাইরে গাড়ি দাঁড়িয়ে আছে, নিয়ে পালিয়ে যাও।”

কিন্তু প্রশ্ন হল কার সঙ্গে বিয়ের কার্ড ছাপা হয়েছিল সালমানের? সাজিদ নাদিয়াদয়ালা অবশ্য কোনও মহিলার নাম নেননি। তবে শোনা যায়, সঙ্গীতা বিজলানির সঙ্গে বিয়ের ঠিক হয়েছিল সালমানের। বিয়ের কার্ডও ছাপা হয়ে যায়। তবে পরে সেই বিয়ে ভেঙে দেন সল্লু। আবার শোনা যায়, সঙ্গীতার প্রতারণার কারণেই নাকি বিয়ে ভেঙেছিলেন সালমান।

এমএইচ



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *