ওমানকে ছাড় দিতে নারাজ তপুরা


বিশ্বকাপ ২০২২ ও এশিয়ান কাপ ২০২৩ এর দ্বিতীয় রাউন্ডের শেষ ম্যাচে মঙ্গলবার ওমানের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। ম্যাচটি বাংলাদেশ সময় রাত ১১টায় সরাসরি সম্প্রচার করবে টি-স্পোর্টস ও গাজী টিভি। তার আগে সোমবার (১৪ জুন) অনুশীলনে ঘাম ঝরিয়েছে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। এদিন সকালে জেমি ডের শিষ্যরা দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে জিম সেশন সম্পন্ন করে। এরপর কাতার ইউনিভার্সিটি মাঠে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত অনুশীলন করেন তারিক কাজী-তপু বর্মনরা।

ওমানের ম্যাচটি বাংলাদেশের জন্য বিশ্বকাপ বাছাইয়ের শেষ ম্যাচ। তবে হলুদ কার্ডজনিত জটিলতায় ওমান ম্যাচে থাকছেন না নিয়মিত অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া। তার অনুপস্থিতিতে বাংলাদেশের অধিনায়কত্ব করবেন ডিফেন্ডার তপু বর্মণ। এ ম্যাচে জয়ের বিকল্প ভাবতে নারাজ তারিক কাজী-তপু বর্মনরা। যদিও ওমানের বিপক্ষে এতটা চিন্তা করাটা একটু বেশি হয়ে যায়। তবে এ ম্যাচে বাংলাদেশ জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারে তাহলে একটি জয় দিয়ে বিশ্বকাপের বাছাই শেষ করতে পারবে। তাছাড়া ওমান বাংলাদেশের তুলনায় ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে অনেক এগিয়ে আছে। সর্বশেষ ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে ওমানের অবস্থান হলো ৮০।

অপরদিকে বাংলাদেশের অবস্থান ১৮৪। র‌্যাঙ্কিংয়ের পাশাপাশি দলগত শক্তির তুলনায় বাংলাদেশের চেয়ে ওমান অনেক এগিয়ে আছে। ফলে তাদের বিপক্ষে বড় সাফল্যের জন্য লড়াই করতে হবে তপু বর্মনদের। এদিকে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে একটি ম্যাচেও জয় তুলে নিতে পারেনি লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। তবে ওমান ৬ ম্যাচ খেলে চারটিতেই জয় তুলে নিয়েছে। আর দুটো ম্যাচে তারা হেরেছে এশিয়ার বর্তমান চ্যাম্পিয়ন কাতারের বিপক্ষে। ভারত ও আফগানিস্তান কেউ ওমানের কাছে পাত্তা পায়নি। তবে ফুটবল হলো মাঠের খেলা। তাই ওমানের বিপক্ষে তারিক কাজী-তপু বর্মনরা যদি জ্বলে উঠতে পারে তাহলে ভালো ফলাফল নিয়েই মাঠ ছাড়তে পারবে।

এর আগে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দ্বিতীয় রাউন্ডে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশ সাতটি ম্যাচ খেলেছে। যেখানে একটি ম্যাচেও জেমি ডের শিষ্যরা জয় তুলে নিতে পারেনি। তবে বাংলাদেশ এবার দুটি ম্যাচে ড্র করতে সমর্থ হয়েছে। ২০১৯ সালে কলকাতার সল্ট লেক স্টেডিয়ামে ভারতের বিপক্ষে ১-১ গোলের ড্র ও এ বছরের ৩ জুন আফগানিস্তানের বিপক্ষে জাসিম বিন হাম্মাদ স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় ম্যাচটিতে ড্র করার মাধ্যমে একটি পয়েন্ট পায় লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা।
এছাড়া ওমানের বিপক্ষে এই ম্যাচটির আগেই বড় একটি ধাক্কা খেয়েছে বাংলাদেশ। আর সেটি হলো দলের সেরা চারজন ফুটবলার এই ম্যাচটিতে খেলতে পারবেন না। তারা হলেন অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া, বিপলু আহমেদ ও রহমত মিয়া। অপরদিকে ইনজুরির কারণে ছিটকে গেছেন মাশুক মিয়া জনি। বাঁছাইপর্বে এ তিনজন দুটি ম্যাচে হলুদ কার্ড দেখেছেন। এ কারণে কপাল পুড়েছে তাদের। জামাল ভূঁইয়া ভারতের বিপক্ষে দুটো ম্যাচেই হলুদ কার্ড দেখেন। বিপলু কার্ড দেখেছেন প্রাক বাঁছাইয়ে লাওসের বিপক্ষে ম্যাচে আর ভারতের বিপক্ষে। অপরদিকে রহমত মিয়া কার্ড দেখেছেন ওমান ও ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে। হলুদ কার্ড দেখে এ তিনজন না খেলতে পারায় ওমান শেষ ম্যাচটিতে বাংলাদেশের ওপর আরো বেশি চড়াও হতে পারবে।

এসএইচ



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *