করোনার ভয়ংকর ডেলটা ভেরিয়েন্ট: যা জানা গেল


ভারতে করোনার নতুন একটি ধরনটির নাম ডেলটা ভেরিয়েন্ট। বৈজ্ঞানিক নাম বি.১.৬১৭.২। গত ফেব্রুয়ারিতে চিহ্নিত হওয়া ডেল্টা ধরনটি এখন পর্যন্ত সন্ধান পাওয়া করোনার সবচেয়ে ভয়ংকর ধরন। এটি ছড়িয়ে পড়েছে বেশ কয়েকটি দেশে। নতুন ধরনটি হঠাৎ করে সংক্রমণ বৃদ্ধির কারণ হওয়ায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশের স্বাস্থ্যব্যবস্থা বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। আশংকা করা হচ্ছে, যুক্তরাজ্যে করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের কারণ হতে পারে এটি। এর সংক্রমণ ঠেকাতে অনেক দেশই নতুন করে লকডাউনের মতো সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অনেকেই লকডাউনের মতো সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের পথ থেকে পিছু হটে। এখন করোনার যেসব টিকা বাজারে এসেছে তা এর বিরুদ্ধে কতটুকু কার্যকর, এ নিয়েও প্রশ্ন ওঠেছে।

গত দুই মাসে ভারতে সংক্রমণ ব্যাপক আকার ধারণ করার অন্যতম কারণ ডেল্টা ভেরিয়েন্ট । যুক্তরাষ্ট্রেও এটি দ্রুত ছড়াচ্ছে।

সিএনএনের বিশ্লেষণ

স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠছে, ডেলটা ভেরিয়েন্ট অন্য ধরনগুলোর চেয়ে বেশি সংক্রামক কিনা। এ নিয়ে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ডেল্টা ধরনটি অন্যগুলোর চেয়ে বেশি ছড়ায়। আলফা ভেরিয়েন্টের চেয়ে এটি ৪০ শতাংশ বেশি সংক্রামক। যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ রোগতত্ত্ব বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউসিও বলেছেন, ডেল্টা ভেরিয়েন্ট বেশি সংক্রামক।

ডেলটা ভেরিয়েন্টটি কতটা প্রাণঘাতী, তা নিয়েও গবেষণা হয়েছে। যুক্তরাজ্যের জনস্বাস্থ্য বিভাগ পিএইচই বলেছে, আক্রান্ত ব্যক্তিরা বেশি অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। ফলে হাসপাতালে নেওয়ার ঝুঁকিও বাড়ছে। যুক্তরাজ্যে ৩৮ হাজারের বেশি নমুনা বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, শনাক্ত আলফা ভেরিয়েন্টের চেয়ে ডেল্টা ভেরিয়েন্ট ২ দশমিক ৬১ গুণ বেশি ঝুঁকিপূর্ণ। ফাউসিও বলেছেন, এই ভেরিয়েন্টের কারণে মৃত্যু বাড়তে পারে।

তবে স্বস্তির খবর হলো, ডেলটা ভেরিয়েন্টের বিরুদ্ধে টিকা কার্যকর। যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাসের মেডিকেল ব্রাঞ্চ ও বায়োএনটেকের গবেষকেরা গত বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন, টিকা নেওয়া ব্যক্তিদের রক্ত পরীক্ষা করে দেখা গেছে, ফাইজার ও বায়োএনটেকের টিকা ডেলটাসহ অন্যান্য ভেরিয়েন্টের বিরুদ্ধে কাজ করে। যুক্তরাজ্যও একই খবর দিয়েছে। দুই ডোজ টিকা নিলে পূর্ণাঙ্গ সুরক্ষা পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। এক ডোজ নিলেও সুরক্ষা মিলবে। তবে ঝুঁকি থেকে যাবে।

পিএইচই আগেই জানিয়েছে, ডেলটা ভেরিয়েন্টের বিরুদ্ধে অ্যাস্ট্রাজেনেকা ও মডার্নার টিকাও কার্যকর। এই দুই টিকার দুটি করে ডোজ নিলে সুরক্ষা পাওয়া যাবে।

ডেলটা ভেরিয়েন্ট এক দেশের ভেতরে যেমন দ্রুত ছড়াচ্ছে, তেমনি এক দেশ থেকে আরেক দেশেও ছড়াচ্ছে দ্রুত। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্য অনুসারে, এ পর্যন্ত ৭৪টি দেশে ছড়িয়েছে এই ভেরিয়েন্ট। অ্যান্টার্কটিকা ছাড়া সব মহাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে এই ভেরিয়েন্ট।

ডে/ আরআর



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *