নতুন অ্যান্টিবডিতে চিকিৎসা, ১২ ঘণ্টায় সুস্থ ২ করোনা রোগী


নতুন একটি অ্যান্টিবডি দিয়ে করোনা চিকিৎসায় দারুণ সফলতা পেয়েছেন ভারতের চিকিৎসকেরা। উপসর্গ দেখা দেওয়ার সাত দিনের মধ্যে মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি প্রয়োগের পর মাত্র ১২ ঘণ্টার মধ্যে দুই রোগী সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন। বৃহস্পতিবার (১০ জুন) ভারতের বার্তা সংস্থা এএনআই এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, নয়াদিল্লির স্যার গঙ্গারাম হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়া এই দুই রোগীর মধ্যে একজন স্বাস্থ্যকর্মী। তাঁর বয়স ৩৬ বছর। অন্যজনের নাম আর কে রাজদান। তাঁর বয়স ৮০ বছর।

প্রচণ্ড জ্বর, কাশি, দুর্বলতাসহ নানা সমস্যায় ভুগছিলেন ওই স্বাস্থ্যকর্মী। উপসর্গ দেখা দেওয়ার ষষ্ঠ দিনে তাঁর শরীরে মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি প্রয়োগ করা হয়। এর পর ১২ ঘণ্টার মধ্যে তাঁর অবস্থার উন্নতি হয় এবং হাসপাতাল ছাড়ার ছাত্রপত্র দেওয়া হয়।

আর কে রাজদানের ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, প্রচণ্ড জ্বর ও কাশি ছিল। তাঁর অক্সিজেনের মাত্রা ছিল ৯৫ শতাংশের কম। তাঁর অবস্থা ছিল মাঝারি পর্যায়ে। উপসর্গের পঞ্চম দিনে তাঁকেও মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি দেওয়া হয়। পরে ১২ ঘণ্টার মধ্যে তাঁর শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়। হাসপাতাল ছাড়ার অনুমোদন পান।

হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের জ্যেষ্ঠ কনসালট্যান্ট পূজা খোসলা বলেন, উপযুক্ত সময়ের মধ্যে রোগীর দেহে মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি প্রয়োগ করা হলে তাৎপর্যপূর্ণ ফল পাওয়া পেতে পারে। অন্য রোগে উচ্চঝুঁকিতে থাকা লোকজনকে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার মতো খারাপ অবস্থা থেকে রক্ষা করতে পারে এই অ্যান্টিবডি। রোগের অবনতিও রোধ করা সম্ভব। এটা করোনা চিকিৎসায় স্টেরয়েড ও ইমিউনোমডিউলেশন ব্যবহার কমাতে সাহায্য করতে পারে। করোনা রোগীদের শরীরে স্টেরয়েড ব্যবহারে ভারতে ছত্রাকের সংক্রমণ উদ্বেগজনক হারে বেড়ে গেছে।

ডে/ আরআর



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *